যেভাবে ব্লগার সাইটে স্পিড বাড়াবেন - Blogger Speed Optimization

ব্লগার স্পিড অপটিমাইজ

একটি ভালো ব্লগ ও ওয়েবসাইটের অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো দ্রুত লোড হওয়া। একটি সাইটের লোডিং স্পীড যদি কম থাকে অর্থাৎ পেজ লোড হতে বেশি সময় নেয় তাহলে বিষয়টি কার কাছে ভালো লাগবে। আজকের এই আর্টিকেলে আমরা জানবো ব্লগার সাইটে কিভাবে লোডিং স্পীড বাড়াতে হয় (Speed Optimization on Blogger Blog)

ব্লগার গুগলের একটি দুর্দান্ত ব্লগিং প্লাটফর্ম। তবে অফিসিয়ালি এতে প্লাগিন ব্যবহার করার সুযোগ না থাকায় ওয়ার্ডপ্রেসের মতো লোডিং স্পিড বাড়ানো যায় না। তবে চিন্তার কিছু নেই, আজকে আমি আপনাদের এমন কিছু কৌশল নিয়ে আলোচনা করবো যেগুলো ফলো করলে আপনার সাইটের লোডিং স্পিড অবশ্যই বাড়াতে পারবেন।

কিভাবে ওয়েবসাইটের লোডিং স্পীড চেক করবো?

ওয়েবসাইটের লোডিং স্পীড বাড়ানোর ক্ষেত্রে আগে জেনে নিতে হবে আপনার সাইটের লোডিং স্পীড কত। ওয়েবপেজ লোড হতে কতো সময় নেয় তা জানার জন্য বিভিন্ন ওয়েবসাইট স্পিড চেকার টুলস রয়েছে। এর মধ্যে গুগলের নিজস্ব রয়েছে গুগল পেজ স্পিড ইনসাইটweb.dev । এই দুটি টুলসের মাধ্যমে আপনি ওয়েবসাইট লোডিং স্পীড চেক করতে পারবেন।

চেক করতে প্রথমেই এই লিংকে ক্লিক করুন। তারপর নিচের মতো একটি ওয়েবপেজ দেখতে পারবেন।

বক্সে আপনার আপনার সাইটের লিংক দিয়ে সাবমিট বাটনে ক্লিক করলেই আপনার সাইটের স্পীড ফলাফল দেখাবে। আর যেসব কারণে স্পীড ভালো না সে বিষয়গুলোও ফলাফলে দেখতে পারবেন।

কেনো লোডিং স্পীড বাড়াবো?

একটি ব্লগ দ্রুত লোড হওয়ার গুরুত্ব অনেক। একদিকে যেমন ইউজারদের জন্য ভালো, অন্যদিকে সার্চ ইঞ্জিনের জন্যও। আপনি আমি নিজেও খুব স্লো কোনো ওয়েবসাইট ব্রাউজ করতে বিরক্তবোধ করি।

একটি পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, যেসব ওয়েবসাইট লোড হতে ৪ সেকেন্ডের বেশি সময় নেয় সেগুলোতে ৪০% পর্যন্ত ইউজার ড্রপ করে। ইউজারের এমন ড্রপ হওয়ার জন্য সার্চ ইঞ্জিন রেঙ্ক পজিশনেও প্রভাব চলে আসে। সুতরাং ব্লগ বা ওয়েবসাইটের লোডিং স্পীড বাড়ানো খুবই গুরুত্বপূর্ন সেটা ইউজার এক্সপেরিয়েন্স হোক নয়তো এসইও এর জন্য হোক। ওয়েবসাইট ফাস্ট হলে সেটা এসইও ফ্রেন্ডলি হয়।

ব্লগারে স্পিড অপটিমাইজ করার বিভিন্ন উপায়

আগেই বলেছি ব্লগারে যেহেতু ওয়ার্ডপ্রেসের মতো প্লাগইন ব্যবহারের সুবিধা নেই, তাই যা করার সব ম্যানুয়ালি করতে হবে। Speed Optimization করার জন্য কিছু পদ্ধতি অনুসরণ করলে ব্লগার সাইটেও ভালো ফলাফল পাওয়া যায়। নিচে ব্লগারের জন্য স্পিড অপটিমাইজ করার কয়েকটি উপায় তুলে ধরা হলো —

১. বাড়তি উইজেট রিমুভ করা

ডিজাইনের কথা চিন্তা করে অনেক সময় আমরা অনেক বেশি উইজেট ব্যবহার করি। বাড়তি উইজেট মানে বাড়তি স্ক্রিপ্ট। আর বেশি স্ক্রিপ্ট লোডিং স্পীড স্লো করে দেয়। তাই যথাসম্ভব দরকারি উইজেটগুলো রেখে বাড়তিগুলো রিমুভ করতে হবে। আর উইজেট হিসেবে কখনোই iframe script ব্যবহার করবেন না, সাইট স্লো করে দেয়ার জন্য এটাই যথেষ্ট।

২. সঠিক সাইজের ছবি আপলোড

আপনি যদি পেইজ স্পিড ইনসাইটে আপনার ব্লগের স্পিড চেক করেন তাহলে বুঝতে পারবেন সাইট স্লো হওয়ার অন্যতম কারণ হলো বড় সাইজের ছবি। বড় সাইজের ছবিগুলো সাধারণত ১ এমবি থেকে বেশি হয়, ফলে ব্লগ লোড হতেও অনেক বেশি সময় লাগে।

এজন্য চেষ্টা করবেন ১০০ কেবির কম এমন ছবি আপলোড করতে। ছবির কোয়ালিটি ঠিক রেখে, ছবির সাইজ কমানো যায় - এরকম অনেক টুলস আছে। তবে আমি ব্যক্তিগতভাবে image.online-convert.com টুলসটি ব্যবহার করি। এতে ছবির সাইজ যেমন কমে যায় তেমনি webp তে কনভার্ট হয়। আপনারা জানেন webp ফরম্যাটের ছবি দ্রুত লোড হয়।

৩. ফাস্ট লোডিং ব্লগার টেমপ্লেট ব্যবহার

এগুলো যতকিছুই করি আপনার ব্লগার টেমপ্লেট যদি ফাস্ট না হয় তাহলে ব্লগ লোড হতে টাইম বেশি লাগবেই। এজন্য ফাস্ট লোডিং ব্লগার টেমপ্লেট ব্যবহার করতে হবে। ফাস্ট লোডিং ব্লগার টেমপ্লেটগুলো খুব ভালোভাবে কোডিং করে মিনিমাইজ করা হয়।

নিচে কয়েকটি জনপ্রিয় ফাস্ট লোডিং ব্লগার টেমপ্লেটের নাম উল্লেখ করা হলো -

  • Jet theme
  • Fletro Pro
  • Median UI
  • Viomagz

এই সবগুলো প্রিমিয়াম ব্লগার টেমপ্লেট। তবে গুগলে সার্চ করে প্রিমিয়াম ভার্সন ফ্রীতে ডাউনলোড করতে পারবেন। টেমপ্লেটগুলো যেমন দ্রুত লোড হবে তেমনি এগুলোর ডিজাইনও দুর্দান্ত।

৪. সিডিএন ব্যবহার (CDN - Cloudflare)

ব্লগার হোস্টেট ওয়েবসাইটগুলো গুগলের হোস্টিং লোকেশন যুক্তরাষ্ট্রের সার্ভার থেকে লোড হয়। আপনার ভিজিটর যদি এশিয়া অঞ্চলে হয় তাহলে সাইট লোড হতে একটু টাইম নিবে। এজন্য ব্যবহার করতে হবে ক্লাউডফ্লেয়ার CDN।

CDN মানে হচ্ছে কনটেন্ট ডেলিভারি নেটওয়ার্ক। বহুল ব্যবহৃত সিডিএন হচ্ছে ক্লাউডফ্লেয়ার। আপনার সাইট যদি ক্লাউডফ্লেয়ারে কানেক্ট থাকে তাহলে দ্রুত লোড হবে। কারণ ক্লাউডফ্লেয়ার আপনার সাইটকে রাউটিং করে ভিজিটরের সবথেকে কাছের সার্ভার থেকে লোড করাবে।

শেষ কথা

এই ছিলো আজকের আর্টিকেল যেখানে ব্লগার সাইটের স্পিড অপটিমাইজ নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। উপরের চারটি পদ্ধতি অনুসরণ করলে আপনার ব্লগার সাইটের স্পিড বাড়াতে পারবেন।

যার ফলে একদিকে যেমন ইউজার এক্সপেরিয়েন্স বাড়বে, ভিজিটর বাড়বে, এসইওর জন্যও ভালো হবে। পোস্টটি আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন, কোনো কিছু জানার থাকলে কমেন্ট করুন। হ্যাপি ব্লগিং।