-->

৫টি সেরা প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ ২০২১

সেরা প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ

বর্তমানে ডিজিটালাইজেশনের যুগে প্রোগ্রামিং সবকিছু। আমাদের আশেপাশে যা দেখছি তার সবকিছু প্রোগ্রামের ফসল।

২০২০ সালের হিসাবে, সর্বশেষ ওয়েব ডেভলপমেন্ট স্টাডিজ অনুযায়ী, এপর্যন্ত প্রায় ৭০০ টি প্রোগ্রামিং ভাষা পাওয়া যায়। এর মধ্যে কয়েকটি শুধু নির্দিষ্ট ক্ষেত্রে কাস্টম ভাষা প্রয়োগ করা হয়, আর অন্যগুলি ফ্রি সোর্স হিসেবে বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশনের মধ্যে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়।

যদি আপনি ২০২১ সালে কোনও নতুন প্রোগ্রামিং শেখার বিষয়ে ভেবে থাকেন তবে ২০২১ এর জন্য আমাদের সেরা ৫টি প্রোগ্রামিং ভাষা নিয়ে আর্টিকেলটি আপনার জন্যই।

১. পাইথন

প্রোগ্রামিংয়ের জগতে দ্রুত জনপ্রিয় হওয়া ভাষাটি হলো পাইথন। পাইথনের জনপ্রিয়তার কারণ পাবলিক এটাকে খুবই পজিটিভ ভাবে নিয়েছে। পাইথনের ওয়েব ডেভেলপমেন্টের ফ্রেমওয়ার্ক বিশেষ করে ডিজঙ্গ আর পিরামিড (Django, Pyramid) পাইথনের সবথেকে আলোচিত টুলসের মধ্যে অন্যতম।

এটার সেরা হওয়ার অন্যতম কারণ হলো এটা একটি উচ্চতর প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ যা সহজেই আয়ত্ত করা যায়। প্রোগ্রামিংয়ের বাজারে পাইথনের চাহিদা সবথেকে বেশি বিশেষ করে নতুন ও দক্ষ দুইধরণের প্রোগ্রামারের কাছেই এর তুমুল জনপ্রিয়তা। এছাড়াও পাইথন একদম ওপেন সোর্স এবং খুবই ভালোভাবে ডকুমেন্টস করা আছে। এছাড়াও পাইথনের রয়েছে বিশাল প্রোগ্রামারদের ফোরাম; যেখানে আপনি কোনো সমস্যায় পড়লে দ্রুত সমাধান পাবেন।

বর্তমানে বিগ ডাটা এবং এআই (আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্ট) জগতে পাইথনের একক রাজত্ব।

২. আর (R)

এই আর প্রোগ্রামিং ভাষা মেশিন লার্নিংয়ের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন ভাষা। আর প্রোগ্রামিং ভাষা ওপেন সোর্স, সহজে নিজের প্রজেক্ট অনুযায়ী কাস্টোমাইজ করা যায় এবং বাড়তি সুবিধার জন্য অত্যন্ত ইফেক্টিভ ফিচার যুক্ত করা যায়।

প্রোডাকশন লেভেল ডাটা সমীক্ষা বিশ্লেষণ এবং বড় বড় ডাটা ভিজ্যুয়ালাইজ করার ক্ষেত্রে আর লাইব্রেরির ব্যাবহার। ডাটা বিশ্লেষণে মাঝে মধ্যে ডাটাবেসগুলির সাথে ইন্টারঅ্যাক্ট করার কোড যোগ করা আর প্রোগ্রামের জন্য কোনও ব্যাপারই না, কারণ এতে প্রোগ্রামিং ব্যবহারিতা শক্তিশালী করে এমন নানা রকমের প্যাকেজ রয়েছে।

৩. জাভাস্ক্রিপ্ট

আমাদের ৩য় সেরা প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ হলো জাভাস্ক্রিপ্ট। এটি মূলত নোড.জেএস (Node.js) ।

জাভাস্ক্রিপ্ট ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত একটি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ। বিশেষ করে ফ্রন্ট-এন্ড ডেভলপারদের জন্য জাভাস্ক্রিপ্ট একটি আশীর্বাদস্বরূপ। Node.js অত্যন্ত ধন্যবাদ পাওয়ার যোগ্য কারণ ব্যাক-এন্ড ডেভলপারদের জন্য জাভাস্ক্রিপ্ট আরো ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত। মূলত জাভাস্ক্রিপ্টের মাধ্যমে ডেভলপাররা অত্যন্ত ইন্টারেক্টিভ সাইট তৈরি করতে পারে। জেনে রাখা ভালো ব্লগারের সব প্রোগ্রামিং বেশিরভাগ জাভাস্ক্রিপ্ট দিয়ে করা।

তবে সাম্প্রতিক সময়ে আমরা জাভাস্ক্রিপ্ট দিয়ে বিভিন্ন গেইম ডেভলপমেন্ট এবং ইন্টারনেট অফ থিংস (IoT) ডেভেলপমেন্ট করতে দেখি।

৪. জাভা

অনেকেই জাভা এবং জাভাস্ক্রিপ্টকে গুলিয়ে ফেলেন, দুটো কিন্তু ভিন্ন বিষয়। জাভা একটি পুরনো প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ যেটি ১৯৯৬ সালের দিকে আবিষ্কৃত হয়। তবে এখনো প্রাতিষ্ঠানিক বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট করার ক্ষেত্রে জাভা তার সেরা অবস্থান এখনও দখল করে আছে। এটি এত জনপ্রিয় হওয়ার একটি কারণ হলো জাভার ধারাবাহিক স্ট্যাবল থাকা এমনকি বার বার পুনরাবৃত্তি করার পরও।

এটা এমন একটি ভাষা যেটি একবার লিখে, যেকোনো ক্ষেত্রে রান করানো যায়। জাভার অটোমেটিক মেমরি এবং গার্বেজ ফাইল সংগ্রহের ফিচারটি অনন্য যা বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশনের ব্যবহারের জন্য পর্যাপ্ত সিপিইউ মেমরির নিশ্চয়তা দেয়। জাভার নিরাপত্তা ব্যবস্থার কার্যকারিতা এবং স্পষ্ট নির্দেশককে বাদ দেওয়ায় সফ্টওয়্যার অ্যাপ্লিকেশন তৈরির জন্য এটি একটি নিরাপদ ও সিকিউরড ভাষায় পরিণত করেছে।

এজন্য গুগল যখন প্রথম দিকে অ্যান্ড্রোয়েড অপারেটিং সিস্টেম নিয়ে আসে সেটা কিন্তু জাভা প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ দিয়েই ডেভেলপ করা ছিলো।

৫. পিএইচপি

এইচপি প্রোগ্রামিং ভাষার তৈরির পিছনে একটি মজার গল্প রয়েছে। এটি প্রথমে একটি ব্যক্তিগত হোমপেজ বানানোর উদ্দেশ্যে তৈরি করা হয়েছিল, তবে এর পরে পিএইচপিতে আসে বিপ্লব। একে বিপ্লব বলতেছি কারণ ফেসবুক, ইয়াহু, মেইলচিম্পের মতো বড় বড় প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট পিএইচপির ব্যবহারে তৈরি।

ওয়েব ডেভেলপিং জগতে পিএইচপি অত্যন্ত পরিচিত মুখ। বর্তমানে একচ্ছত্রভাবে বিভিন্ন ধরনের স্টাটিক্স ও ডাইনামিক ওয়েবসাইট তৈরিতে পিএইচপি ব্যাবহার করা হয়।

পিএইচপি ব্যবহারের কিছু সুবিধা:

  • খুব সহজেই ওয়েব পেইজ তৈরি করা যায়।
  • এটিতে অনেক দুর্দান্ত ফ্রেমওয়ার্ক রয়েছে।
  • এটি এক্সডিবাগের মতো ডিবাগারগুলোর সাথে ব্যবহার করা যায়।
  • এটি বিভিন্ন অটোমেশন টুলস ব্যবহারের সুবিধা দেয় প্রোগ্রাম রান করার জন্য।
  • এদের রয়েছে মাথা নষ্ট কমিউনিটি সাপোর্ট।

কোন প্রোগ্রামিং থেকে কত আয় করা যায়?

প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ থেকে ইনকাম

আজকের এই আর্টিকেলের সেরা ৫টি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের প্রোগ্রামারেরা বার্ষিক গড় কত টাকা আয় করে সেটা একটি জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে ২০২০ এর শেষের দিকে। নিচের টেবিলে কোন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ থেকে কিরকম আয় করা সম্ভব সেটা তুলে ধরা হলো:

পাইথন$ ১০৩,৫৮৭
আর$ ১০০,২২৪
জাভাস্ক্রিপ্ট$ ১০৫,৪১৮
জাভা$ ১০৫,১৬৪$
পিএইচপি$ ৮৬,৬১৬

এইছিলো আমাদের আজকের ২০২১ এ সেরা ৫টি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ বা ভাষা নিয়ে আলোচনা। আশা করি সবাই বুঝতেই পেরেছেন কোন প্রোগ্রামিং কতোটা জনপ্রিয় আর কেনো জনপ্রিয়। এবারে আপনার চাহিদা অনুযায়ী ধারাবাহিকভাবে প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ শেখা শুরু করতে পারেন।